শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাকে ‘শাস্তি’ বলছে দক্ষিণ আফ্রিকা

অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেট সময় রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৮
ছবি : সংগৃহীত

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন সর্বপ্রথম ধরা পরে দক্ষিণ আফ্রিকায়। গত ২৪ নভেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিএইচও) বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববাসীকে। একই সঙ্গে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানায়। এর পরপরই দক্ষিণ আফ্রিকার ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আসতে থাকে বিভিন্ন দেশ থেকে। সবার আগে যুক্তরাজ্য দক্ষিণ আফ্রিকা ও এর প্রতিবেশী ছয়টি দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এরপর যুক্তরাষ্ট্রসহ আরও অনেক দেশ একই পথে হাঁটে। একে ‘শাস্তি’ হিসেবে দেখছে দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার।

স্থানীয় সময় শনিবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার বিষয়টির সমালোচনা করে। এতে বলা হয়েছে, বিজ্ঞানের চমৎকার সাফল্যের জন্য সাধুবাদ জানানো উচিত, শাস্তি নয়। দক্ষিণ আফ্রিকা অনেক দ্রুত করোনার এই নতুন ধরন শনাক্ত করতে পেরেছে জিনোম সিকোয়েন্স পরীক্ষার মাধ্যমে। কিন্তু সেটির ‘শাস্তি’ পাচ্ছে তারা এখন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, যখন নতুন এই ধরন বিশ্বের অন্যান্য দেশেও শনাক্ত হচ্ছে তখন দক্ষিণ আফ্রিকার ওপর বিপরীত প্রতিক্রিয়া দেখানো হচ্ছে।

এদিকে, যুক্তরাজ্যে দুইজন, জার্মানিতে দুইজন, বেলজিয়ামে একজন, ইতালিতে একজন এবং চেক রিপাবলিকে একজনের শরীরে নতুন ধরন ওমিক্রনের অস্তিত্বের কথা জানা গেছে। এর আগে, দক্ষিণ আফ্রিকার পর ইসরায়েল, হংকং ও বতসোয়ানায় এই নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়। সূত্র: বিবিসি

আরও পড়ুনঃ দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে গাড়ির ধাক্কা, নিহত ১৭

শেয়ার করুন

আরো খবর