সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন

শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নাম ভাঙিয়ে চাঁদা আদায় করত তারা

নিজস্ব প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪৭

রাজধানীর মোহাম্মদপুর কেন্দ্রিক ৮ থেকে ১০ জনের দাকাত দল সংঘবদ্ধ এক অপরাধী চক্রের সদস্য। চক্রটি রাজধানীর মোহাম্মদপুর, বসিলা ও শ্যামলী এলাকায় বিভিন্ন পলাতক শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিলো। কয়েক বছর ধরে এলাকার ব্যবসায়ী, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, নির্মাণাধীন ভবন মালিকদের কাছে চাঁদা আদায় করে আসছিলো চক্রটি। চাঁদা না দিলে তারা ভুক্তভোগীদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে ভয়-ভীতি দেখান তারা। তারপরেও কেউ চাঁদা দিতে রাজি না হলে ভুক্তভোগীদের বাসা-বাড়ি অথবা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ডাকাতি করতেন।

বেশ কয়েক মাস ধরে পলাতক এক সন্ত্রাসীর নামে ইডেন অটোস নামক প্রতিষ্ঠানে চাঁদা দাবি করে আসছিল চক্রটি। চাঁদা না দিলে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়। হুমকি ও ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে তারা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিতে ডাকাতি করার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী ১১ অক্টোবর তারা ঢাকা উদ্যান এলাকায় জড়ো হন। এ সময় জসিমের বাসায় জহির, জাহিদ, নয়ন, খায়রুল ও রাকিব একত্রিত হয়ে শ্যামলী ইডেন অটোস শো-রুমে ডাকাতি করার পরিকল্পনা করেন।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, ১২ অক্টোবর সন্ধ্যায় শ্যামলী এলাকায় অবস্থিত উত্তরা মোটরসের ডিলার ইডেন আটোস নামের শো-রুমে ডাকাত দল প্রবেশ করে ম্যানেজার ওয়াদুদ সজীব ও মোটর টেকনিশিয়ান নুরনবী হাসানকে ধারালো চাপাতি দিয়ে আঘাত করেন। এ সময় ডাকাত দলের কিছু সদস্য শো-রুমের দোতলায় উঠে গ্লাস, কম্পিউটার, ল্যাপটপ ও ক্যাশ ড্রয়ার ভাংচুর করেন এবং নগদ সাড়ে ৫ লাখ টাকা ও কম্পিউটার নিয়ে চলে যান।

ডাকাতির ঘটনার মূলহোতা জহিরুল ইসলাম ওরফে জহিরসহ ওই চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় লুট করা অর্থ ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত দেশীয় অস্ত্র ও অন্যান্য আলামত জব্দ করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- জহিরুল ইসলাম ওরফে জহির (৩৩), জসিম উদ্দিন (৩৪), জাহিদুল ইসলাম শিকদার (২৬), খায়রুল ভূঁইয়া (২০), রাকিব হাসান (২০), ও মো. নয়ন (২৮)। অভিযানে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ৪টি চাপাতি, শো-রুম থেকে লুট হওয়া এক লাখ ৯৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও ডাকাতিকালে তাদের পরিহিত ২টি গেঞ্জি ও একটি লুঙ্গি জব্দ করা হয়।

রোববার (২৪ অক্টোবর) দুপুরে কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, শ্যামলীর ইডেন অটোস ডাকাতির ঘটনায় শো-রুমের মালিক পক্ষ থেকে কে এম আবদুল খালেক শেরেবাংলা নগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ডাকাতির ঘটনাটি রাজধানীর অন্যতম প্রধান সড়ক ও জনবহুল এলাকায় হওয়ায় স্থানীয় জনগণ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে ব্যাপক ভীতি ও ত্রাসের সৃষ্টি করে। এছাড়াও গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টি করে। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে র‌্যাব ছায়া তদন্ত শুরু করে ও গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শনিবার রাতে র‌্যাব সদরদপ্তর গোয়ন্দা শাখা ও র‌্যাব-২ ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ ও ধামরাই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডাকাত চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন: উদ্যোক্তা হিসেবে নারীরা ভূমিকা রাখছেন: শিল্পমন্ত্রী

শেয়ার করুন

আরো খবর