শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন

টিকা নিতে এসে ইভ টিজিংয়ের শিকার ছাত্রীরা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৪৯
টিকা নিতে এসে ইভ টিজিংয়ের শিকার ছাত্রীরা
ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনে যাতে আক্রান্ত হতে না হয়, এ জন্য স্বাস্থ্যঝুঁকি কমাতে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের জন্য করোনা টিকার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। 

কিন্তু টিকা নিতে এসে ইভ টিজিংয়ের শিকার হচ্ছে মেয়ে শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে টিকা নিতে আসা একাধিক মেয়ে শিক্ষার্থী এমন অভিযোগ করে। কয়েকজন টিকা না নিয়ে বিরক্ত হয়ে বাড়ি ফিরে যায়।

সরেজমিনে টিকা কেন্দ্রে দেখা যায়, চলতি মাসের মধ্যে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা টিকা না নেওয়া পর্যন্ত স্কুল-কলেজে তারা ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারবে না। সরকারের এমন ঘোষণার পর থেকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জন্মনিবন্ধনের সনদ দেখিয়ে টিকা নিচ্ছে। টিকা কেন্দ্রে ছেলেদের জন্য আলাদা বুথ এবং মেয়েদের জন্য আলাদা বুথ রয়েছে।

এরপর মেয়েদের বুথের সামনে মেয়ের লাইনের আশপাশে হাসপাতালের তিনটি প্রবেশপথের দুটিতে ছেলে শিক্ষার্থীরা দলবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে মেয়েদের নানা কটূক্তি, শিশ দেওয়া ও প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে নানা প্রস্তাব দিচ্ছে।

কুড়িগ্রাম মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বলে, ১০টার সময় এসেছি টিকা নিতে। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। খারাপ লাগছে। এরপর আবার ছেলেরা বাজে বাজে কথা বলছে। তাই টিকা না নিয়ে বাসায় চলে যাচ্ছি।

কুড়িগ্রাম বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বলে, আমরা বান্ধবীরা টিকা নেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছি অনেকক্ষণ। ছেলেরা আমাদের সরাসরি প্রেমের প্রস্তাব দিচ্ছে।

বেগম নুরনাহার স্কুলের সপ্তম শ্রেণির আরও এক শিক্ষার্থী বলেন, আমি টিকা নিয়ে কেন্দ্র থেকে বের হয়েছি। হাসপাতালের গেটের সামনে ছেলেরা আমাকে ঘিরে ধরে গার্লফ্রেন্ড হবে জিজ্ঞেস করছে।

বিষয়টি নিয়ে কয়েকজন ছেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা কার্ড দেখিয়ে বলে, আমাদের টিকা নেওয়া শেষ। বান্ধবীদের সঙ্গে একসঙ্গে বাড়ি যাব।

আরও পড়ুন : ওমিক্রনের সংক্রমণ থেকে ব্যাপক সুরক্ষা দেয় জোড়া মাস্ক

শেয়ার করুন

আরো খবর