মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন

পরীমনির গোপন তথ্য ফাঁস, দ্বায়ী করলেন পুলিশকে!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১
  • ৭০০
পরিমনির গোপন তথ্য ফাঁস, দ্বায়ী করলেন পুলিশকে!
ছবি: চিত্র নায়িকা পরীমনি

বাংলাদেশের এক অণ্যতম চলচ্চিত্র গ্লামার নায়িকা পরীমনি। তাকে নিয়ে বিভিন্ন সোশাল মিডিয়াতে ধর্ষন ও হত্যার দ্বায়ে সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। তবে কেন এই ধর্ষন ও হত্যা পরিকল্পনা তা নিয়ে মিডিয়া পাড়ায় আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। আমরা যদি প্রশ্ন করি এগুলো তার কৃতকর্মের ফল। তিনি অভিযোগ তুলেন, সাভার থানা পুলিশের বিরুদ্ধে। তবে পুলিশ জানে তিনি একজন নায়িকা এবং তার রেকর্ড খারাপ বটে। হয়ত সিনেমা জগতে ছবি না থাকায় এই কৌশলটি ব্যবহার করে ভাইরাল হতে চাচ্ছেন পরীমনি। শুধু তাই না নেই পরীমনির শিক্ষগত যোগ্যতা, নেই তার পরিচয়। ফকিন্নি লেভেল থেকে উঠে এসে হয়েছেন চিত্র নায়িকা পরীমনি। কোন স্বভ্য পরিবারের মেয়ে রাত ১০ টার পর ক্লাবে গিয়ে মদ্যপান করেনা আর মদ্যপান অবস্থায় বাসায় ফিরেনা। এমনিতেই তার অশ্লিলতা নিয়ে নানান গুঞ্জন রয়েছে।

আরো পড়ুন
https://twitter.com/CrimeexpressNet

হয়ত নাসিরউদ্দিন মাহমুদসহ চার জনের সাথে ব্যাটে বলে না মেলায় ধর্ষন ও হত্যার চেষ্টা নাটকটি সাজিয়েছেন এবং সাভার থানায় একটি মামলা দ্বায়ের করেন। গোপন সূত্রে জানা যায়, কিছুদিন পূর্বে একটি গাড়ি কিনেছেন তিনি। তাহলে এতটাকা কোথায় পেলেন তিনি। একজন সৎ অভিনেত্রী কখনো বাড়ী গাড়ীর মালিক হতে পারেন না। কিন্তু আমদের মিডিয়া কর্মীরা প্রশ্নবৃদ্ধগুলি না তুলে ধরে দালালি করছেন একজন অসৎ নায়িকার পক্ষে। আমরা জানি বর্তমানে চলচ্চিত্র অংঙ্গনে তেমন কাজ নেই। তাহলে তার আয়ের উৎস কোথায়? নাম প্রকাশ করায় অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, পরিমনির মিডিয়াতে তেমন কাজ না থাকায় বড় বড় ক্ষমতাশালী ও ব্যবসায়ীদের টার্গেট করে যৌন বাণিজ্যে লিপ্ত আজ গ্লামার নায়িকা পরীমনি ও কোটি কোটি টাকার মালিক। এতদিন জেনে এসেছি ময়ূরী, মুনমুন, শানু, শাপলাসহ ডজনখানেক অশ্লিলতার নায়িকার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে চলচ্চিত্র প্রাঙ্গনে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে তাকে কেন করা হয়নি এনিয়েও নানান প্রশ্ন উঠেছে। এমনকি অসৎ উপার্জনের বিপুল অর্থও খরচ করেন তার জম্মদিনে। সেই ভিডিও ফুটেজগুলো খতিয়ে দেখলে বোঝা যায় তার আয়ের উৎস কোথায়? শুধু তাই নয় দেশ ও দেশের বাহিরেও টার্গেট করা বৃত্তবান ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগও পাওয়া যায়। এছাড়া তিনি যে ধর্ষনের অভিযোগটি এনেছেন তা আদৌ যুক্তি সংঙ্গত নয় বলে ব্যক্ত করেন অনেকে। কারণ তিনি প্রতিদিনই ধর্ষনের স্বীকার হন, সেটি হোক ইচ্ছায় বা সেটি হোক অর্থের বিনিময়ে।

আরো পড়ুন
https://www.linkedin.com/in/crime-express-aa9a401a8/

এদিকে সাভার থানা পুলিশ কর্তৃপক্ষকে দ্বায়ী করে বলেন, তারা কোন আইনি সহযোগীতা করেননি। বিষয়টি নিয়েও আলোচনা সমালোচনা উঠেছে। তবে পরীমনি থানা পুলিশকে যে অভিযোগটি করেছেন তাহা ভিক্তিহীন। কিন্তু ইতিপূর্বে পুলিশ বলেছিল আপনি সঠিক প্রমাণাদি নিয়ে থানায় আসুন আমরা আইনি সহায়তা দিবো। কিন্তু তিনি কোন সঠিক তথ্য প্রমাণাদি দিতে পারেননি। এজন্য আজ গোটা পুলিশকে দ্বায়ী করা হচ্ছে। যাহার কোন ভিক্তি নেই। তাছাড়া পুলিশ প্রশাসনও বুঝে একজন নায়িকার চরিত্র সম্পর্কে। বর্তমান জগতের নায়িকারা দেহ বাণিজ্য ছাড়া এদের কোন আয় ইনকাম নেই বললেই চলে। কথায় আছে লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু। এভাবেই হয়রানীর শিকার হচ্ছে সমাজের বৃত্তবানশালীরা। তাই সকল মিডিয়াকে বলব কেন এই ঘটনা, কেন ঘটল তার সঠিক অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন করেন এবং পরিমনির সকল তথ্য উৎঘাটন করুন। তাহলে বেড়িয়ে আসবে তার চাঞ্চল্যকর তথ্য এবং হয়রানীর শিকারও হবেনা সমাজের বৃত্তবানশালীরা।

আরো পড়ুন
পুঁজিবাজার থেকে ৪৮৩১ কোটি টাকা মূলধন নিয়েছে ৬৮ প্রতিষ্ঠান
https://www.facebook.com/profile.php?id=100050527901576

শেয়ার করুন

আরো খবর