বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন

ফ্লিনটফের হুমকির পরই ৬ ছক্কা মারেন যুবরাজ

স্পোর্টস ডেস্ক:
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৮ মে, ২০২০
  • ১৪৭

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে ভারতীয় অলরাউন্ডার যুবরাজ সিংয়ের কীর্তি ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে গেঁথে থাকবে আজীবন। ২০০৭ সালে অনুষ্ঠিত ওই আসরে ইংল্যান্ডের পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডকে এক ওভারে ৬টি ছক্কা হাঁকান যুবরাজ। আগের ওভারেই ইংলিশ অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ স্লেজিং করেন যুবরাজকে। ফ্লিনটফের কথায় ভীষণ ক্ষেপে যান যুবরাজ। আর ঝাল মেটান ব্রডের ওপর।

সেদিন যুবরাজকে কী বলেছিলেন ফ্লিনটফ? ইংল্যান্ডের আরেক সাবেক ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেনের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে এসে ১৩ বছর আগের সেই ঘটনার বর্ণনা দিলেন যুবরাজ। তিনি বলেন, ‘আমার মনে আছে, ফ্রেডি (ফ্লিনটফ) দুটো ভালো ডেলিভারি দেয়ার পর একটা ইয়র্কার মেরেছিল। আমি আবার ইয়র্কারটাকে চার মেরে দিই।

এরপর সে আমাকে বললো, ‘আমি তোমার গলা কাটতে যাচ্ছি। আমি উত্তর দিই, ‘আমার হাতে ব্যাটটা দেখেছো? তুমি জানো এই ব্যাট দিয়ে আমি তোমার কোথায় আঘাত করতে যাচ্ছি?’ আমার মনে আছে, আমি খুব রেগেছিলাম যখন ব্রডকে ছয় ছক্কা মারি। এরপর আমি প্রথমে ডিমিট্রি মাসকারেনাস এরপর ফ্রেডির দিকে তাকাই।’’
মাসকারেনাসের দিকে তাকানোর বিশেষ কারণ ছিল যুবরাজের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এক ওয়ানডে ম্যাচে যুবরাজকে ৫ ছক্কা মেরেছিলেন মাসকারেনাস। যুবরাজ বলেন, ‘ও আমাকে একটি ওয়ানডেতে ৫টি ছক্কা মেরেছিল। এ কারণেই তার দিকে তাকাই।’

যুবরাজের স্মরণীয় সেই বিশ্বকাপ আরো স্মরণীয় হয়ে ওঠে ভারতের ট্রফি জয়ে। এরপর ম্যান ইন ব্লুদের হয়ে ২০১১ সালে তিনি জিতেছেন ওয়ানডে বিশ্বকাপও। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড নৈপুণ্য নিয়ে সেবার টুর্নামেন্টসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন যুবরাজ সিং। ভারতের ক্যাপে ৩০৪ ওয়ানডে, ৫৮ টি-টোয়েন্টি ও ৪০টি টেস্ট খেলেছেন ক্যান্সারজয়ী এই ক্রিকেটার।

শেয়ার করুন

আরো খবর