রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৭:২৩ পূর্বাহ্ন

হরিরামপুরে সরকারি রাস্তা দখল করে বাড়ি নির্মানের অভিযোগ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় সোমবার, ৭ জুন, ২০২১
  • ২০
ছবি: প্রতিনিধি

মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর উপজেলার বলড়া ইউনিয়নের বড়ইচড়া গ্রামে জনসাধারনের চলাচলের জন্য সরকারী হালট (রাস্তা) দখল করে বাড়ী নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে ।

হরিরামপুর উপজেলার বলড়া ইউনিয়নের বড়ইচড়া গ্রামের প্রবাসী নিমাই সরকারের স্ত্রী কাঞ্চনী বৈরাগী স্থানীয়দের চলাচলের জন্য সরকারি হালট (রাস্তা) দখল করে ঘড় নির্মাণ কাজ শুরু করলে প্রতিবেশী নারায়ন সরকার (গ্রাম পুুলিশ) ও গ্রামবাসী বাধা প্রদান করলে কাঞ্চনী বৈরাগী অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ এবং মারার হুমকি প্রদান করেন বলে জানা গেছে।

নারায়ণ সরকারের সাথে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয়দের সাথে নিয়ে সরকারি সম্পত্তি ও জনসাধারনের যাতায়াতের রাস্তা দখল করে অবৈধভাবে বাড়ী তৈরি করায় বাধা প্রদান করলে কাঞ্চনী বৈরাগী ও তার সহযোগীরা ক্ষিপ্ত হয়ে মারতে আসে এবং বিভিন্ন হুমকি প্রদান করেন।

তিনি আরো জানায়,বিষয়টি বলড়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলীকে অবহিত করলে তিনি একাধিকবার সরজমিনে এসে নির্মানাধীন বাড়ী তৈরিতে বাধা প্রদান করলেও বাড়ী নির্মানকাজ বন্ধ রাখেনি।

এ ব্যাপারে গত ২০’এপ্রিল ২০২১ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিত অভিযোগ করা হলেও অদ্যবধি নির্মান কাজ বন্ধ রাখেনি কাঞ্চন বৈরাগী।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রবাসী নিমাই সরকারের স্ত্রী কাঞ্চনী বৈরাগী বলড়া ইউনিয়নের বড়ইচড়া পাকা রাস্তা সংলগ্ন আলিম কাজীর বাড়ী হইতে বড়ইচড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৪০ ফুট প্রসস্ত সরকারি হালটের শুরুতে কিছু অংশ দখল করে পূর্বে একখানা চারচালা ঘর নির্মান করে। পূনরায় হালটের কিছু অংশ দখল করে ইমারত নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাওয়ায় একদিকে যেমন সরকারী আইন অমান্য করেছেন অন্যদিকে এলাকাবাসীর চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছেন। তারা আরো জানান, সরকারি সম্পত্তি দখল করে বাড়ী নির্মানের সময় বাধা প্রদান করলে কাঞ্চনী বৈরাগী যে অশ্লীল ভাষা ও বল প্রয়োগ করেছেন তার সুষ্ঠ বিচার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন না করলে অনেকেই এমন অবৈধ কাজের উৎসাহ পাবে।

এ বিষয়ে কাঞ্চনী বৈরাগীর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, আমার জায়গায় আমি ঘর উঠাইছি, বলড়ার চেয়ারম্যানসহ অনেকেই বিষয়টা জানে। কারো ভাল কেউ দেখতে পারেনা বলেই আমার নামে অভিযোগ করেছে।

এ বিষয়ে হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলামের সাথে কথা বলে জানা যায়, অভিযুক্ত জায়গায় সার্ভেয়ার পাঠানো হয়েছে। সার্ভেয়ারের তদন্ত অনুযায়ী রিপোর্ট পেলে পরবর্তী ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরো পড়ুন:
দেড় ঘণ্টায় ডিএসইতে লেনদেন ৯০০ কোটি টাকা
https://www.youtube.com/watch?v=-dauLSmMPBg

শেয়ার করুন

আরো খবর