সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০২:৫৭ অপরাহ্ন

রাসপূজায় লক্ষাধিক টাকা রাজস্ব আদায়

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৫

পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরারেঞ্জে রাসপূজা ও পূণ্যস্নান উপলক্ষে তীর্থযাত্রীদের নিকট হতে এক লক্ষ দশ হাজার তিনশত একষট্টি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে।

আরও পড়ুনঃছাত্রের মৃত্যু,বড় ভাই গ্রেফতার

বনবিভাগ সাতক্ষীরারেঞ্জ সূত্রে প্রকাশ, গত ৬ নভেম্বর থেকে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত সুন্দরবনের দুবলার চরে আলোরকোলে শুধু রাসপূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠিত হয়। রাসপূজা উপলক্ষে বুড়িগোয়ালিনী ও কোবাদক স্টেশনের আওতায় তীর্থযাত্রীদের পাশের সংখ্যা ছিল ১৫টি ও জলযান বা ট্রলার সংখ্যা ছিল ১৫টি। এ সকল ট্রলারে পূণ্যার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৩৭জন। পুণ্যার্থীর মধ্যে বুড়িগোয়ালিনী স্টেশনের আওতায় ছিল ১৩২জন ও কোবাদক স্টেশনের আওতায় ছিল ৪০৫জন।

পুণ্যার্থীর প্রবেশ ফি আদায় হয় ৫৬,৪০০টাকা এর মধ্যে বুড়িগোয়ালিনী স্টেশনে ১৬,২৭৫ টাকা ও কোবাদক স্টেশনে ৪০,১২৫ টাকা আদায় হয়। জলযান প্রবেশ ফি বাবদ ২১,৩০০টাকা ও অবস্থান ফি বাবদ ১৮,৯০০টাকা আদায় হয়। এর মধ্যে বুড়িগোয়ালিনী স্টেশনে প্রবেশ ফি ৬৮০০টাকা ও অবস্থান ফি ৬৯০০ টাকা এবং কোবাদক স্টেশনের আওতায় আদায় হয় প্রবেশ ফি ১৪,৫০০টাকা ও অবস্থান ফি ১২,০০০ টাকা। ক্যামেরা বাবদ ৯০০টাকা। ভ্যাট বাবদ আদায় ১২,৮৬১টাকা। বুড়িগোয়ালিনী স্টেশনে ভ্যাট ৪৩৮৯.৭৫টাকা ও কোবাদক স্টেশনে ৮৪৭১.২৫টাকা আদায় হয়।

সবমিলিয়ে সর্বমোট রাজস্ব আদায় হয় হয়েছে ১লক্ষ ১০ হাজার ৩৬১ টাকা। মোট টাকার মধ্যে বুড়িগোয়ালিনী স্টেশনে ৩৫,২৬৪.৭৫টাকা ও কোবাদক স্টেশনে ৭৫,০৯৬.২৫ টাকা রাজস্ব হয়।

সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক এমকেএম ইকবাল হোছাইন চৌধুরী বলেন, রাসপূর্ণিমার রাসপূজা ও পূণ্যস্নান উপলক্ষে এবার পুণ্যার্থীদের যাতায়াতের জন্য ৫টি রুট বা পথ নির্ধারণ করা হয়েছিল। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী রাসপূজা উপলক্ষে শুধুমাত্র সনাতন ধর্মালম্বীরাই সুন্দরবনের দুবলার চরে গমন করে ছিলেন।

আরও পড়ুনঃমসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

শেয়ার করুন

আরো খবর