রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০৫:৪১ অপরাহ্ন

লকডাউনের মধ্যেই অ্যালকোহল পানে দু’জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৫ মে, ২০২০
  • ১১৩
লকডাউনের মধ্যেই খুলনা মহানগরীতে অ্যালকোহল পানে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন, ময়লাপোতা হরিজন কলোনির অরুণ দাস (৬০) ও নীলা দাস (৬২)। সোমবার (৪ মে) দুপুরে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমতাজুল হক বলেন, করোনার মধ্যে এ ধরনের ঘটনা কীভাবে এবং কোন প্রক্রিয়ায় ঘটে তা জানার জন্য অনুসন্ধান চলছে।
খুলনা জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক হাওলাদার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম জানান, বিষয়টি জানার পর কোনও হোমিওপ্যাথি দোকান থেকে তারা অ্যালকোহল জাতীয় কিছু দ্রব্য সংগ্রহ ও পান করে। আমরা এ বিষয়ে মাঠ পর্যায়ে গিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখবো। অবৈধভাবে কোনও হোমিওপ্যাথি দোকান ওইসব অ্যালকোহল বিক্রি করে কিনা তা তদন্ত করা হচ্ছে। শনাক্ত করার পর তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, লকডাউন ঘোষণার পর থেকে খুলনায় দেশি মদ ও কেরু কোম্পানির মদ বিক্রির লাইসেন্সকৃত দোকানগুলোকে বন্ধ রাখার নির্দেশনা রয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবার দুপুরে অরুণ ও নীলা অ্যালকোহল কিনে পান করেন। এদের মধ্যে অরুণ সোমবার দুপুরে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে খুমেক হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একই ঘটনায় নীলাকে প্রথমে শিবসা নার্সিং হোমে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকেও খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে তিনিও মারা যান।

খুমেক হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. অনল রায় জানান, অ্যালকোহল পানে অরুণ ও নীলা দু’জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।
প্রসঙ্গত, গত বছরের ৮ ও ৯ অক্টোবর মদ পানে ২ ভাইসহ ৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

শেয়ার করুন

আরো খবর