সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন

হামার কাম বাড়চে কিন্তু পাইসা নাই

ক্রাইম এক্সপ্রেস ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৩১

 সরকার তো চোকে দেকে না হামাক’। আক্ষেপ করে বলছিলেন আদিতমারী বুড়িরহাট বাজারের পাহারাদার শাহ আলম।

এই বাজারের আরেক পাহারাদার হাবিবুর ইসলাম জানান, সাত সদস্যের পরিবার নিয়ে অর্থাভাবে অতিকষ্টে দিন কাটছে তার। সরকারি সহায়তার এক ছটাক ত্রাণের চালও পাননি বলে অভিযোগ তার।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে সর্বত্র। পরিস্থিতি মোকাবেলা বন্ধ রয়েছে হাট বাজার ও দোকানপাট। এতে দায়িত্ব বেড়েছে বাজারের পাহারাদারদের।

আগে রাত ১২ থেকে ১টার দিকে তাদের ডিউটি শুরু হতো, শেষ ভোর ৫টায়। এখন বাজার পাহারায় নিযুক্ত এসব মানুষকে চুরি বা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঠেকাতে সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। কিন্তু ব্যবসায়ীদের দোকান বন্ধ। আয় কমে গেছে তাদের। তাই বেতন পেতে বেগ পেতে হচ্ছে হয়েছে বাজার পাহারাদারদের।

লালমনিরহাটের এমন শতাধিক হাট বাজার এবং ছোট ছোট মহল্লার বাজারের দায়িত্বে থাকা পাহারাদাররা জীবিকা নিয়ে এসময়ে চরম বিপাকে পড়েছেন।

দোকানপাট বন্ধ থাকায় ঠিকঠাক মতো বেতন পাচ্ছেন না তারা। সরকারিভাবেও তাদের জন্য নেই কোন সহায়তার ব্যবস্থা। ফলে মানবেতর জীবন যাপন করছেন এদের অনেকেই।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, লালমনিরহাটে এমন হাটবাজার পাহারাদারের সংখ্যা পাঁচ শতাধিক।তবে, ছোট ছোট বাজারগুলো হিসাব করলে পাহারাদারের সংখ্যা আরো বাড়বে।

এ ছাড়াও আগে রাতে পাহারাদারের কাজ করে দিনের বেলা এরা গৃহস্থালিসহ অন্য কাজ করতে পারতেন।এখন করোনা পরিস্থিতিতে তাও সম্ভব হচ্ছেনা। এখন তাদের একটানা ১৪/১৫ ঘন্টা নির্ঘুম থেকে দিনের বেলা ক্লান্ত শরীর নিয়ে ঘুমাতে হচ্ছে।  এতে উভয় দিক থেকে ক্ষতির মুখে পড়ছেন তারা। এমন কি অনেকের ইচ্ছে থাকলেও দায়িত্ব ছাড়তে পারছেন না। নিরুপায় এই মানুষগুলো সরকারি সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন।

মহিষখোঁচা কুষ্টারির হাটের পাহারাদার ন্যাক্টু মিয়া বলেন, ‘কয়টা পাইসার জন্যে সারারাইত পরবাস থাকি, বাজার কিছু হারাইলে জরিমানাও হামাকে দেওয়া নাগে আর এ্যাল্যা হামার ব্যাতনে নাই’।

গতানুগতিক ত্রাণ সহায়তা চান না পাহারাদাররা। বাজার পাহারার মত গুরুত্বপূর্ণ কাজে নিয়োজিত থাকলেও তাদের কোন সংগঠন নেই। এমনকি সরকারের কাছে তাদের কোন তালিকা নেই। তাই তারা চান, তালিকা করে নিয়মিতভাবে নূন্যতম সরকারি সুবিধার আওতাভূক্ত করা হোক তাদের।

শেয়ার করুন

আরো খবর